শরীরের যে সমস্যা থাকলে রসুন খাবেন না

আমাদের শরীরের অনেক সমস্যার জন্যই রসুন খুব উপকারি। তবে সবার শরীরের জন্যই যে এই খাবারটি ভাল ফল নিয়ে আসবে তা কিন্তু নয়। রসুনের কিছু কিছু গুণের জন্য আপনার শারীরিক সমস্যা বেড়েও যেতে পারে। আপনার যে সমস্যাগুলো থাকলে রসুন খাওয়া ঠিক নয়, এমন কিছু কারণ জেনে নিন।

লিভারের সমস্যা : লিভারের সমস্যা থাকলে রসুন না খাওয়াই ভাল। কারণ রসুন আপনার লিভারের সমস্যা আরো বাড়িয়ে দিতে পারে। হোমিওপ্যাথি ওষুধ : পেঁয়াজ, রসুন হোমিওপ্যাথি ওষুধের কার্যকারিতা নষ্ট করে দিতে পারে। তাই হোমিওপ্যাথি ওষুধের কোর্স খেলে সেই সময় রসুন এড়িয়ে চলুন।

নিম্ন রক্তচাপ : কারো যদি নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা থাকে তাহলে রসুন কম খাওয়াই ভাল। রসুন রক্তচাপ আরো কমিয়ে সমস্যা তৈরি করতে পারে। রক্তাল্পতা : রসুন রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। তাই রক্তাল্পতার সমস্যা থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুসারে রসুন খাওয়া বাদ দিতে পারেন। বদহজম : হজমের সমস্যায় ভুগলে রসুন ও তেল মসলাযুক্ত খাবার থেকে দূরে থাকুন।

গর্ভ নিরোধক পিল : যদি আপনি নিয়মিত গর্ভ নিরোধক পিল খান তাহলে অতিরিক্ত রসুন খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। রসুন গর্ভ নিরোধক পিলের কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়। গর্ভকালীন সময়: রসুন শরীর গরম করে। গর্ভাবস্থায় অতিরিক্ত রসুন খেলে তা শরীরের তাপমাত্রা বাড়িযে দেয়। যার ফলে গর্ভপাতের সম্ভাবনা থাকে। যাদের রসুনে অ্যালার্জি আছে তারা এড়িয়ে চলুন। তবে সমস্যা না থাকলে খালি পেটে রসুন খাওয়ার অনেক উপকারিতা আছে জেনে নিন সে গুলো:

খালি পেটে রসুন খাওয়া স্বাস্থ্যকর একটি ব্যাপার। খালি পেটে রসুন খেলে এমন কিছু উপকার হয়, যেটা অন্য খাবারের সাথে রান্না করা অবস্থায় খেলে হয় না। রসুন অবশ্যই খেতে হবে সকালে, নাস্তা করার আগে। চিবিয়ে খেতে না চাইলে পানি দিয়ে গিলে ফেলুন টুকরো করা দুই কোয়া রসুন। এটি শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিকের কাজ করে। গবেষকদের মতে খালি পেটে রসুন খেলে তা হাইপারটেনশন ও স্ট্রেস কমাতে সহায়তা করে। অন্যদিকে হজমের সমস্যাও রোধ করে। স্ট্রেস থেকে পেটে গ্যাসের সমস্যা হলে সেটাও প্রতিরোধ করে খালি পেটে রসুন। অন্যদিকে ডায়রিয়া হলে দ্রুত তা সারিয়ে দেয়। সকালে খালি পেটে রসুন রক্ত পরিস্কার করে।

আরও পড়ুন- হাজারও রোগ থেকে মুক্তি দেবে শজনে ডাঁটা

শজনে ডাঁটা আমরা কমবেশি সবাই চিনি।শজনে ডাঁটা ও শজনে গাছের সবুজ কচিপাতা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। ঢাকা বা ঢাকার বাইরে সব জায়গায় বাজারে পাবেন শজনে। শজনে আমরা সবাই চিনি। তবে শজনের গুণাগুণ আমাদের অনেকেরই অজানা। শজনে ডাঁটা বা পাতা যাই বলুন না কেন এর বহুদিন রোগ সারানোর ঔষধি গুণ রয়েছে। আমেরিকান জার্নাল অব নিউরোসায়েন্স জানাচ্ছে পুরুষদের লিঙ্গ উত্থানের সমস্যা বা উদ্দীপনার ঘাটতিতে খুব ভালো কাজ করে শজনে ডাঁটা। প্রতিদিনের ডায়েট রাখতে পারেন শজনে ডাঁটা। অথবা এক গ্লাস দুধে শজনে ফুল, নুন ও গোলমরিচ মিশিয়ে প্রতিদিন খেলেও উপকার পাবেন।

চিকিৎসকরা পরামর্শ দিচ্ছেন এই শজনে ডাঁটা খাওয়ার জন্য। তবে অনেকে এর গুণাগুণ জানেন না বলে খেতে চান না। এখন বাজারে হাত বাড়ালেই পাবেন শজনে। এই শজনে আপনার হাজারো রোগ থেকে মুক্তি দেবে। পুষ্টিবিদ মালবিকা দত্তের মতে, সুষম খাবার বলতে যা বোঝায় শজনে হলো সে রকম একটি খাবার। শজনেতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, আয়রন রয়েছে। রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডান্টও। তাই ঋতু পরিবর্তনের এই সময়ে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে শজনে খান।

আসুন জেনে নেই শজনের গুণাগুণ। ১. জলবসন্ত, ডায়েরিয়া, লিভারজনিত বিভিন্ন রোগপ্রতিরোধ করে শজনে। ২. শজনেতে ফসফরাস থাকার কারণে হাড় মজবুত রাখতে সাহায্য করে। ৩. শজনের খেলে হার্ট সুস্থ থাকে। ৪. শজনের মধ্যে হাঁপানি উপশমের উপাদানও চিহ্নিত করা গেছে। ৫. শজনে খেলে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে। ৬. যারা রক্তস্বল্পতায় ভুগছেন তারা শজনে খেতে পারেন। এছাড়া রক্তে শর্করার পরিমাণ ঠিক রাখতেও শজনে খেতে পারেন। তবে যারা শজনে খেতে পছন্দ করেন না তারা শজনে ফুল দিয়ে বড় খেতে পারেন। এই মৌসুমে বাজারের হাত বাড়ালেই পানে ফুল বা শজনে ডাঁটা।