Home / লাইফ স্টাইল / কিভাবে বুঝবেন মেয়েটি আপনাকে শুধু ব্যবহার করছে ?

কিভাবে বুঝবেন মেয়েটি আপনাকে শুধু ব্যবহার করছে ?

মেয়েটি আপনাকে – চোখে চোখ পড়তেই ভালবেসে ফেলেছেন মেয়েটিকে। একদিন হাতে হাত রেখে ভালবাসার কথাটি বললেন দুজন দুজনকে। আপনাদের সম্পর্ক বয়ে চলছে নিরন্তর। কিন্তু সেই খাঁটি এবং নিখাদ ভালবাসার স্বপ্নীল অনুভূতিগুলো ক্রমেই কোথায় যেনো হারিয়ে যাচ্ছে। বিষন্ন মন আর ঘোলাটে দুশ্চিন্তা নিয়ে প্রেমিক প্রায়ই ভাবেন, মেয়েটি কি তাকে স্রেফ ব্যবহার করছে? এতো ভালবাসার পরও কি কিছুই পাওয়ার নেই?

মনোবিজ্ঞানী এবং গবেষকদের মতে, প্রেম-ভালবাসায় প্রেমিকের সবচেয়ে কদর্য কষ্টের পরিস্থিতি এটি। যখন সে অনুভব করছে যে তার ভালবাসার মানুষটি তাকে শুধুই ব্যবহার করছেন। একইভাবে এর বিপরীতটাও সত্য। অর্থাৎ প্রেমিকের অসীম ভালাবাসার সুযোগ নিয়ে প্রেমিকা যদি নিজের স্বার্থ আদায়ে বা শুধু সময় কাটানোর জন্যে বা বিশেষ লক্ষ্য হাসিলের উদ্দেশ্যে সম্পর্কটি বজায় রাখে, তবে একজন প্রেমিকার এর চেয়ে নিকৃষ্ট নিষ্ঠুর আচরণ আর হতে পারে না।

প্রেমিকার প্রতারণা বা ছলনা যাই হোক, ছেলেটিকে এই একতরফা ভালবাসার বেড়াজাল থেকে বাঁচাতে কিছু কার্যকর পরামর্শ দিচ্ছেন এক্সপার্টরা। মূলত এই বিষয়গুলো সম্পর্কে জানা থাকলে গভীরে ডুবে যাওয়ার আগেই আপনার বোধোদয় হবে। আপনি বুঝতে পারবেন মেয়েটি আপনাকে শুধুই ব্যবহার করছেন কি না।

এমন চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের মেয়েদের কিছু আচরণগত লক্ষণ তুলে ধরেছেন গবেষকরা।

মেয়েটি শুধু তার প্রয়োজনে সুযোগ খুঁজবে: একটু খেয়াল করে দেখুন, আপনার পছন্দের মেয়েটি কি খুব ব্যস্ত হয়ে আপনাকেই খোঁজে যখন তার বিশেষ প্রয়োজন থাকে? প্রয়োজন মিটে গেলে হয়তো বেশ কয়েক দিন তার কোনো পাত্তাই থাকে না। আপনার প্রতি অগাধ ভালবাসা নিয়ে আবার সে উদয় হয় কোনো একটা কাজে। আপনি যাকে ভালবাসেন তার এসব আচরণে আপনার ভালবাসার কমতি নাও হতে পারে। বরং অনেক ক্ষেত্রে সে আপনাকে যতো দূরে ঠেলে দিবে, আপনার আবেগ ততো বেশি পাগলাটে হতে থাকবে। এমন মেয়ে শুধু তার প্রেমিককে ব্যবহারই করে না, সে অন্য ছেলের সাথেও সম্পর্কে জড়িয়ে যায়- এ ধরনের উদাহরণ দেখা গেছে অসংখ্যবার। কিছু ঘটনা মাথায় রাখবেন। যেমন- মেয়েটি আপনাকে অনেক পছন্দ করে বলে জাহির করে, কিন্তু আপনার দুঃসময়ে দূরে থাকে। সে বলে যে আপনার সাথে সময় কাটাতে তার অনেক ভাল লাগে, কিন্তু সময়ই দেয় না। এসব ক্ষেত্রে ধরেই নেয়া যায়, সে অন্য কোনো ছেলের প্রেমে পড়েছে। কাজেই ভাল একটি মেয়ের জন্যে অপেক্ষা করুন।

বন্ধুদের মাঝে আপনিই তার সবকিছু: ছেলেদের সাথে মেয়েদের স্বার্থপরতার আরেকটি সাধারণ চিত্র দেখাই। বন্ধুদের আড্ডায় হঠাৎ আপনার উপস্থিতিতে সে যেনো হাতে আকাশের চাঁদ পেলো- এমন আচরণ প্রায়ই করে। দেখা হওয়ামাত্রই বন্ধু-বন্ধু বলে চিৎকার দিতে দিতে দৌড়ে এসে আপনাকে জড়িয়ে ধরে। একা শপিংয়ে যেতে পারছে না, তাই আপনাকে নিয়ে যাবে। ক্ষুধা লেগেছে, তাই পাশের ফাস্টফুডের দোকান থেকে আপনাকে কিছু খাবার এনে দিতে অনুরোধ করে। মোদ্দকথা, খুঁটিনাটি সব কাজে আপনাকে ছাড়া সে বড় অসহায়। আপনিও তার কাজে অন্তপ্রাণ একজন। কাজগুলো করে দিলে মেয়েটি মিষ্টি কণ্ঠে থ্যাংকস জানায় বা দুষ্টুমি করে আপনার চুলগুলো হাত দিয়ে এলোমেলো করে দেয়। এসব আপনার অসম্ভব ভাল লাগে, কি চমৎকার মনের একটি মেয়ে পেয়েছেন আপনি। আসলে বোকার স্বর্গে বাস করছেন আপনি। ভেবে দেখুন, আপনার কোনো কাজে তার টিকির দেখাটিও নেই। এখনও সময় আছে, মোহ থেকে বেরিয়ে আসুন। অন্যান্য বন্ধুদের সাথে আপনার আরো মজার সময় কাটবে।

তার বন্ধুমহলের সাথে আপনার পরিচয় করিয়ে দেবে না: যে মেয়েটা আপনাকে ব্যবহার করতে চাইবে সে তার নিজের বন্ধুদের সাথে সহজে আপনার পরিচয় করিয়ে দেবে না। যদি দেয়, সে তার চেয়ে কম সুন্দরী বান্ধবীদের সাথে আপনার সাক্ষাৎ ঘটাবে। আর তার যে ছেলে বন্ধুগুলো আপনার চেয়ে সুদর্শন, তাদের সামনে আপনাকে নিয়ে যাবে না। আবার সম্পর্কের খাতিরে আপনাকে কোনো অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ করলে দেখবেন সেখানে সে আপনাকে তেমন পাত্তাই দিচ্ছে না। কাজের অজুহাতে দূরে দূরে থাকছে। এমন আচরণে সাধারণত ছেলেরা মেয়েটিকে ক্ষমা করে দেয় এবং তা ভুলে যায়। অথচ আপনার বোঝা উচিত যে, মেয়েটি যদি আপনাকে সত্যিই ভালবাসে এবং তার জীবনসঙ্গী হিসেবে পেতে চায় তাহলে নির্দ্বিধায় আপনার পরিচয় তুলে ধরবে সবার কাছে।

সন্দেহঘটিত সুবিধা: আপনার সাথে তার সম্পর্কটি নিয়ে মেয়েটি বেশ দুশ্চিন্তাগ্রস্ত বা সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগতে পারে। বিশেষ করে, অন্যের সাথে তার সম্পর্কটি যদি সদ্য ভেঙে গিয়ে থাকে বা তার সাবেক প্রেমিককে সে এখনও ভালবাসে- এ জাতীয় সমস্যায় মেয়েটির সাথে আপনাকেও দুশ্চিন্তা আর সিদ্ধান্তহীনতায় গা ভাসিয়ে দিতে হবে না। যদি সে আপনাকে ভালবাসে, তবে তার মধ্যে কোনো দোটনা থাকবে না। যদি থাকে, বুঝবেন তার মনে অন্য কেউ বসে আছে এবং তিনি আপনি নন। এখানে আপনি তার বলির পাঁঠা। প্রেমিক বা পছন্দের মানুষের শূন্যস্থান পূরণে সাময়িকভাবে আপনাকে প্রয়োজন তার।

শুধু বলবে কিন্তু আপনার কথা শুনতে চাইবে না: আপনার এই প্রেমিকা শুধু তার গল্প করতেই পছন্দ করে। তার জীবনের গল্প, তার পরিবারের গল্প বা তার নিজের পছন্দ-অপছন্দের গল্প। আপনারও খুব ভাল লাগে। কারণ মেয়েটি তার কতো কিছু আপনার সাথে ভাগাভাগি করে। কিন্তু পরখ করে দেখুন, একইভাবে আপনার কথাগুলোও সে শোনে কি না। আপনি প্রতি মুহূর্তেই তাকে কিছু বলতে চান, কিন্তু সে বলার সুযোগই দেয় না। আবার শুনতে শুরু করলেও দ্রুতই তার ধৈর্য্যচ্যুতি ঘটে। কথার মাঝখানেই তা শেষ করতে চায়। আপনার প্রতি ভালবাসা থাকলে সে অবশ্যই আপনার কথা শুনবে এবং তার সমাধানের চেষ্টা করবে।কাজেই প্রেমিক হৃদয় পুরুষদের বলা হচ্ছে, আপনার পছন্দের মানুষটির মাঝে এ বিষয়গুলো খেয়াল করে দেখুন। লক্ষণ দেখা দিলে সাবধান হয়ে সিদ্ধান্ত নিন।