Home / লাইফ স্টাইল / আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা যেভাবে ফিরিয়ে আনবেন ভাতের ফ্যান দিয়ে

আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা যেভাবে ফিরিয়ে আনবেন ভাতের ফ্যান দিয়ে

আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা- ত্বকের উজ্জ্বলতায় আপনার সৌন্দর্য্যে আনে আলাদা মাত্রা। তাই ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় রাখাও খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু শীতকাল এলেই প্রায় সকলেই ত্বকের চর্চা বন্ধ রাখেন, তাছাড়াও শীতকালে ত্বক রুক্ষ ও শুস্ক হতে হতে প্রচুর মৃতকোষে পরিণত হয়। ফলে ত্বকের সেই চাকচিক্য ভাব কোথায় যেন হারিয়ে যায়।

এই সকল সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে অনেকেই পার্লার যাই, ফেসিয়াল করে। সবই ঠিক আছে। কিন্তু বাড়িতেও একটু রূপচর্চা করার প্রয়োজন আছে কারণ সবসময় আপনার পক্ষে পার্লারে যাওয়া সহজ নয় এই কর্মব্যস্ততার যুগে।

আর তাছাড়া পার্লারে গাদাগাদা টাকা খরচ না করে আপনি বাড়িতে সহজেই পেয়ে যাবেন ত্বকের উজ্জ্বলতা। শুধু পদ্ধতিটি জেনে তা ব্যবহার করলেই কাজে দেবে।

যে উপাদান দিয়ে ফিরিয়ে আনবেন ত্বকের সৌন্দর্য্য সেটি আর কিছুই নয়, ভাতের ফ্যান। বাঙালি – অবাঙালি নির্বিশেষে কম বেশি সকলেই ভাত খান। সেই ভাত রান্নার সময় তার ফ্যান বা মার্ ফেলে না দিয়ে সেটিকে সংরক্ষণ করুন একটি শিশিতে।

চীন ও জাপানের মতো উন্নত দেশগুলিতে ভাতের ফ্যান দিয়ে এখনও নানা গবেষণা চলে আসছে। এর উপকারিতা জানলে আপনাকে পার্লারে ছুটতেই হবেনা।

ভাতের ফ্যান দিয়ে মুখ ধুলে মুখ পরিষ্কার এবং সতেজ থাকে।

মুখের ত্বকে যেসব ছোট ছোট ক্ষত থাকে, সেগুলিও সরিয়ে তোলে ভাতের ফ্যান।

ভাতের ফ্যান দিয়ে চুল পরিষ্কার করলেও আপনার চুলের উজ্জ্বলতা দিন দিন বাড়তে থাকবে।

জল দিয়ে মুখ দিয়ে একটি কটন প্যাড দিয়ে মুখে টোনার হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন।
ত্বককে ফর্সা করতেও সাহায্য করে।

ত্বকের ময়শ্চারাইজার বা এন্টিঅক্সিডেন্টেরও কাজ করে এবং অতি বেগুনি রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে।
ফ্যান আপনার ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না।

সানট্যান পরে যাওয়া অংশে তুলো দিয়ে ফ্যান লাগালে আপনার ত্বক থেকে যান দূর হয়ে যায়।