Home / খেলাধুলা / আইপিএলে যে পাঁচ পাকিস্তানি তারকাকে দলে নিতে লড়াই করত দলগুলো

আইপিএলে যে পাঁচ পাকিস্তানি তারকাকে দলে নিতে লড়াই করত দলগুলো

আইপিএলে পাকিস্তানি ক্রিকেটার নিষিদ্ধ। দুই দেশের বৈরি রাজনীতির কারনে ভারতের এই টুর্নামেন্টে পাকিস্তানি খেলোয়াররা খেলতে পারেননা। কিন্তু এটাও সত্যি যে যদি পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা এই টুর্নামেন্ট খেলত তাহলে তা আরও জমজমাট হত নিশ্চিত ভাবেই।

কিছুদিন আগে বেশি কয়েকজন এই দাবী তোলে যে আইপিএলে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের খেলতে দেয়া হউক। যদিও সেই দাবী মুখেই থেকে গেছে। কিন্তু যদি পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের এই টুর্নামেন্টে খেলতে দেয়া হত তাহলে যে পাঁচ পাকিস্তানি তারকাকে নিয়ে কাড়াকাড়ি পড়ত …

১. ইমাদ ওয়াসিম: পাকিস্তানের অন্যতম সেরা বোলার ইমাদ ওয়াসিম। পাকিস্তানের হয়ে ৩১ ম্যাচে ৩৫টি উইকেট নেয়া ইমাদের ইকোনোমি রেট ৬.০৩। যদি নিলামে তারা অংশ নিতে পারত তাহলে এই পেসারের জন্য হুমরি খেত অনেক দলই।

২. ফখর জামান: পাকিস্তানি এই ড্যাশিং ওপেনারের দামও অনেক হত নিশ্চিত ভাবেই। ২৮ বছর বয়সী ফখর জামান আছেন দারুন ছন্দে। ওয়ানডেতে সবচয়ে দ্রুত ১০০০ রান পূর্ন করা ক্রিকেটারও তিনিই। পাকিস্তানের হয়ে এখন পর্যন্ত ২৬টি টুয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ১৩৯ স্ট্রাইকব রেটে ৭০৬ রান করেছেন এই পাক ওপেনার।

৩. শোয়েব মালিক: পাকিস্তানি এই অলরাউন্ডারের কদর প্রতিটি ফ্রাঞ্চাইজি লিগেই। নিশ্চিত ভাবেই এই অলরাউন্ডারকে নিয়ে কাড়াকাড়ি হত দল গুলোতে।

৪. সাদাব খান: বিশ্বের অন্যতম সবচেয়ে জনপ্রিয় লেগ স্পিনার সাদাব খান। টি-টুয়েন্টিতে তার বোলিং অসাধারন। এখথন পর্যন্ত ১৯টি টি-টুয়েন্টি খেলেছেন সাদাব খান। উইকেট নিয়েছেন ২৮টি। ২০১৮ সালে টি-টুয়েন্টিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট টেকার বোলারও তিনিই।

৫. বাবর আজম: পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ব্যাটম্যান বাবর আজম। আইপিএলে নিলামে তাকে নিতেও হুরোহুড়ি পরত দল গুলোতে। দেশের হয়ে মাত্র ২৬টি ম্যাচেই ১০৩১ রান করেছেন বাবর আজম। টুয়েন্টিতে তার এভারেজ ৫৪.২৬। তার স্ট্রাইক রেট ১২৪.৩৭।