Wednesday , January 16 2019
Home / লাইফ স্টাইল / একটা চামচ দিয়ে বোঝা যাবে কিডনি বা ফুসফুসে কোন সমস্যা রয়েছে কি না!! কিভাবে তা জেনে নিন…

একটা চামচ দিয়ে বোঝা যাবে কিডনি বা ফুসফুসে কোন সমস্যা রয়েছে কি না!! কিভাবে তা জেনে নিন…

কর্মব্যস্ততার জীবনে দৌড়ঝাপে ভরা জীবনে রোজই এক বা একাধিক অনিয়ম হয়েই আসছে। আর এই অনিয়ম থেকেই শরীরে আস্তানা করে নিচ্ছে বিভিন্নরকম রোগ ব্যধি। আবার সময়েরও অভাব তাই ক্লিনিক যাবো যাবো করেও যাওয়া হয়ে ওঠেনা।

অগত্যা মানুষের সঙ্গিই হয়ে উঠছে দিনদিন অসুখ। কিন্তু সামান্য টোটকার খোঁজখবর রাখলেই এর এমনটা হওয়া থেকে নিজেকে বাঁচানো যায় খুব সহজেই। অন্তত এটুকু সম্বন্ধে সচেতন হওয়া যায় যে আদও কি রোগ মুক্ত আপনি নাকি রোগের কবলে ইতিমধ্যেই।

সম্পূর্ণ ঘরোয়া এই পদ্ধতিতেই দেখে নিতে পারবেন আপনি আপনার শরীরে কি রোগ আছে। সেটা পেটের সমস্যা হোক বা ফুসফুসের সমস্যা, সমস্তটাই আপনার কাছে খোলসা হয়ে যাবে। ঘড়োয়া এই পরীক্ষার জন্য প্রয়োজন শুধু একটা চামচ আর স্বচ্ছ প্লাস্টিকের।

প্রথমে জিভের মধ্যে চামচটি চেপে ধরুন। এতে দেখবেন আপনার লালা ক্ষরণ হচ্ছে এবং লালা এসে লাগছে, তারপর চামচটি প্লাস্টিকের প্যাকেটে ভরুন। এখানেই শেষ নয়। এবার প্লাস্টিকটিকে সূর্যের আলোয় কিংবা টেবিল ল্যাম্পের আলোর নীচে কিছুক্ষণ রাখুন। তারপর তুলুন।

দেখবেন হয় এতে হয় চামচে কোনো দাগ পরেছে অথবা দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে নয়তো দুটোর মধ্যে কিছুই হয়নি । এক্ষেত্রে দুটোর মধ্যে কিছু না হলে ভাববেন আপনি সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন। আর যদি দুটোর মধ্যে যেকোনো একটাও হয় তবে আপনাকে বুঝে নিতে হবে যে আপনার শরীরে ইতিমধ্যেই রোগের আক্রমণ ঘটে গেছে। মিষ্টি গন্ধ বেড়োলে বুঝবেন ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে অন্যদিকে যদি ঝাঁঝালো গন্ধ বেড়োয় তবে বুঝবেন যে কিডনির সমস্য রয়েছে।

হালকা হলুদ বা সাদা রঙও বেড়োয় অনেক সময়, তখন আপনাকে সচেতন হতে হবে আপনার থাইরয়েড রয়েছে এই কথা ভেবেই। হালকা বেগুনো রং এর দাগ থাকলে বুঝবেন বুকে সর্দি বসে আছে অথবা হাই-কোলেস্টেরল। কমলা রং আবার ইঙ্গিত দেয় কিডনিক সমস্যার।

এই ঘড়োয়া টোটকা এভাবেই আপনাকে আপনার শরীরের রোগ ব্যাধি সম্পর্কে সচেতন করতে সক্ষম । তবে এই ঘরোয়া পরীক্ষার পর নিজেকে ফেলে রাখবেন না উপরিউক্ত রোগগুলির যেকোনো একটিও আপনার শরীরে যদি ধরা দেয় তবে তৎক্ষণাৎ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। নইলে পরবর্তীকালে ব্যাপারটি আরো বড় আকার ধারণ করতে পারে তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।