Wednesday , January 16 2019
Home / লাইফ স্টাইল / এরেঞ্জড ম্যারেজ ও লাভ ম্যারেজের কয়েকটি মারাত্মক রসালো পার্থক্য যা দেখলে আপনি …

এরেঞ্জড ম্যারেজ ও লাভ ম্যারেজের কয়েকটি মারাত্মক রসালো পার্থক্য যা দেখলে আপনি …

এরেঞ্জড ম্যারেজ ও লাভ – তুমি কি করবে যদি তুমি একইসময় দুটি সংস্থায় চাকরি পেয়ে যাও? তুমি কোন চাকরিটি করতে পচ্ছন্দ করবে? তুমি কি তোমার পরিচিত শহরের চাকরিটি করবে না কি তোমার সম্পূর্ণ অপরিচিত শহরের চাকরিটি করতে চাইবে। এই উদাহরণটি আমি দিলাম কারণ তুমি যে মেয়েটিকে ভালবাসো তাকে বিয়ে করা অনেকটাই ওই নিজের পরিচিত শহরে থাকার মত ব্যাপার আর এরেঞ্জড ম্যারেজ তোমার মনে উদ্বেগ তৈরী করে যা অনেকটা নিজের অপরিচিত শহরে থাকার সাথে সমতুল্য।

তুমি কোনটি পচ্ছন্দ করবে এরেঞ্জড ম্যারেজ না লাভ ম্যারেজ? আমার মনে হয় এটা উত্তর দেওয়ার সঠিক সময় এখনো হয়নি। কারণ আমার মনে হয় এরেঞ্জড ম্যারেজ ও লাভ ম্যারেজের ভালমন্দ জানার পরে তুমি সঠিক সিদ্ধান্ত পৌঁছাতে পারবে।

মা, একটু হেঁটে দেখাও!
এরেঞ্জড ম্যারেজঃ তোমার সাথে তোমার পার্টনারের প্রথম দেখা হওয়ার মুহূর্ত থেকে তুমি তোমার সুখের পথে নানান বাঁধার সম্মুখীন হবে। কারণ এরেঞ্জড ম্যারেজে প্রেম নয় বড় হয়ে দাঁড়ায় শাশুড়ি, শশুড় ও পরিবারের অনুমোদন।

লাভ ম্যারেজঃ এখানে তোমাকে তোমার ভালবাসার সাথে বিয়ের আগে কোন ‘অগ্নিপরীক্ষা’ দিতে হয় না। কারণ এখানে তোমার পার্টনার তোমার ব্যক্তিত্বকে ভালবাসে। লাভ ম্যারাজে তুমি নিশ্চিত থাকতে পারো তোমার পার্টনার বা তার পরিবারের কেউ তোমায় বলবে না যে, ‘মা একটু হেঁটে দেখাও’।

আমার মা আছে
এরেঞ্জড ম্যারেজঃ এরেঞ্জড ম্যারেজে প্রথমে একে অপরের পরিবারকে সন্তুষ্ট করতে হয় যে তোমরা একে অপরের পরিপূরক, বিয়ের পর একজন মেয়ের সেইটুকুই করার স্বাধীনতা থাকে যেখানে শাশুড়ি ‘হ্যাঁ’ বলে। আর একজন ছেলে তার শশুড় বাড়ি কে ‘না’ বলতে পারে না।

লাভ ম্যারেজঃ স্বাধীনতা হচ্ছে লাভ ম্যারেজের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ঠ্য।

এরেঞ্জড ম্যারেজঃ বিয়ের দিন নিজের জীবনসাথীর সাথে নতুন ইনিংস শুরু করার সময় আমি বলতে পারব না সবাই কেন স্নায়ুচাপে ভোগে।

লাভ ম্যারেজঃ “ধর্মানুষ্ঠানগুলি শেষ হওয়ার আর অপেক্ষা করতে পারছি না, আমার সারা শরীর শিহড়িত হচ্ছে, আমি খুব খুশি। আমার জীবনের ভালবাসা এখন আনুষ্ঠানিকভাবে আমার”। নিজের ভালবাসাকে বিয়ে করার পর একজন ছেলে বা মেয়ের এই অনুভূতিগুলি হয়।

এবার নাতির মুখ কবে দেখাবে?
এরেঞ্জড ম্যারেজঃ একজনের কি রকম মনে হবে যখন কেউ তাকে বিয়ের প্রথম রাতে বলবে, ‘এবার নাতির মুখ কবে দেখাবে?’ রাগে মাথা কাজ করবে না। এরেঞ্জড ম্যারেজে অনেকেরই এইধরনের অভিজ্ঞতা হয়। কারণ এরেঞ্জড ম্যারেজ হচ্ছে নিজের স্বপ্ন ভূলে অন্যর ইচ্ছা পূর্ণ করা।

লাভ ম্যারেজঃ তোমার সঙ্গী এটা নিশ্চিত করবে যে তোমার উপর কেউ যেন প্রভাব তৈরী না করে।

পরে কিছু বলবে না আগেই ‘সাবধান’ করে দিচ্ছি
এরেঞ্জড ম্যারেজঃ এরেঞ্জড ম্যারেজের পর জীবন হচ্ছে শুধুই বোঝাপড়া, বোঝাপড়া আর বোঝাপড়া। কিন্তু…

লাভ ম্যারেজঃ ঠিক এর নামের মতই লাভ ম্যারেজ হচ্ছে ভালবাসা, ভালবাসা আর অন্তহীন ভালবাসা।বউমা, রান্না হল?

এরেঞ্জড ম্যারেজঃ এই ধরনের বিয়ে অনেক সময়ই স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক হতে পারে। কারণ এখানে সবসময়ই অন্যর পচ্ছন্দের মত চলতে হয়।

লাভ ম্যারেজঃ এটা তোমার জীবনকে অনেক ভাল করে তুলবে। কারণ এখানে তুমি তোমার হৃদয়কে অনুসরণ কর।

আমাদের যৌতুক নয়, শুধু আপনার মেয়ে চাই
এরেঞ্জড ম্যারেজঃ গাড়ি বা বাড়ির দাবি করা যৌতুক নয়, ঠিক?

লাভ ম্যারেজঃ “আমি শুধু আপনার মেয়ে কে বিয়ে করতে চাই, আমার শুধু একটা ‘হ্যাঁ’ দরকার”।

প্রেমে পড় আর সারা জীবন হাঁসতে হাঁসতে কাটাও!

যদি তুমিও এই মতগুলির সাথে সহমত হও তাহলে সেই সমস্ত বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভূল না যারা লাভ ম্যারেজ ও এরেঞ্জ ম্যারেজ নিয়ে বিভ্রান্ত।